১৯৩ রান করে ফখর জামান বিশ্বের ১মাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে গড়লেন বিশ্বরেকর্ড

হারা দলের হয়ে ইতিহাসে দ্বিতীয়, সাথে ওয়ানডেতে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান করলেন পাকি'স্তানের ওপেনার ফখর জামান। ১৯৩ রানের মনোমুগ্ধকর ইনিংসটার ইতিটা শুভ 'হতো যদি তার দল জিততো!

কিন্তু না, ১৭ রানের ব্যবধানে হেরে সিরিজ জয়ের অ’পেক্ষাটা বেড়ে গেলো পাকি'স্তানের।

৩৪২ রানের লক্ষ্য ছুঁতে নামা দলটার ২৫ ওভারে সংগ্রহ ছিল ১২০ রান। উইকেট পড়ে গিয়েছিল যেখানে ৫টি। দলকে খাদের কিনারা থেকে একাই টেনে তুলে জয়ের খুব নিকটে গিয়েও ব্য'র্থ হয়েছেন ফখর।

যথাযথ সঙ্গীর অভাবে জয়টা ফস্কে গেছে বাবর বিগ্রে'ডের। তবে এই ম্যাচে ১৯৩ রানে ইনিংস খেলে বিশ্বের ১ মাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে করলেন অন্যন্য এক রেকর্ড। ২য় ইনিংসে এক ব্যাটসম্যানের এইটি সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর।

দলপতি হিসেবে বাবরও যোগ্য সাথ দিতে পারেননি বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যানের। মোটে করেছেন ৩১ রান। আসিফ আলী আর শাদাবের ব্যাট থেকে এসেছে যথাক্রমে ১৯ এবং ১৩ রান।

প্রোটিয়াদের বোলিংটা ছিল ছক অনুযায়ী, বু'দ্ধিদী'প্ত । খন্ডকালীন স্পিনার মাকরাম বাদে সকলেই পেয়েছেন সাফল্যের দেখা। নর্টজিয়া ৩টি, ফেলুকাও ২টি আর বাকি তিনজন ১টি করে উইকেট পকে'টে পু'ড়েছেন।

এদিকে, ম্যাচের প্রথম ভাগে টস জিতে স্বাগতিকদের ব্যাটিয়ে আমন্ত্রণ দেয় পাকি'স্তান। প্রথম সারির পাঁচ জনের ব্যাটেই আসে রান। মাকরাম-ডিককের ওপেনিং জুটিতে প্রোটিয়ারা তোলে ৫৫ রান।

মাকরাম ৩৯ করে বিদায় নিলেও ডিকক খেলতে থাকেন নিজের ছন্দে। শতক থেকে ২০ রান দূরে ৮০ রানের মাথায় তাকে ফিরতে হয় সাজঘরে। বোল্ড হোন পাক পেসার হাসান রউফের বলে।

নয়া অধিনায়ক বাভুমা এদিন দেখিয়েছেন নিজের ঝলক। গেল ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান ডুসেনকে নিয়ে গড়েন শত রানের জুটি। ৬০ রানে ডুসেন কা'টা পড়েন হাসনাইনের কাছে। এরপরে, দলীয় ৩৬ রানের ব্যবধানে বাভুমাও আউট হোন নার্ভাস নাইন্টির শি'কার হয়ে, ৯২ রানে। মূল্যবান উইকেটটি জমা পড়ে রউফের খাতে।

এরপরে, ডেভিড মিলারের ২৭ বলে ৩ ছক্কা আর ৩ চারে ৫০ রানের অ’পরাজিত ক্যামিওতে ৬ উইকে'টে ৩৪১ রান তোলে দক্ষিণ আফ্রিকা।

বোলারদের নাস্তানাবুদ হওয়ার দিনে পাকি'স্তানের পক্ষে একমাত্র ৫৪ রানে ৩ উইকেট নেন হাসান রউফ। বাকি তিনজন পেয়েছেন ১টি করে উইকেট।

ম্যাচ সেরা : ফখর জামান (পাকি'স্তান)।

Facebook Comments
Back to top button