করো’নায় মানুষের বাসায় কাজ বন্ধ, খিদের জ্বালায় কাঁদছেন গুলবানু

গু'লবানু বেগম (৭০) ঝালকাঠির পৌর শহরে 'বিকনা গ্রামে জরাজীর্ণ বসতঘরে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। স্বামী কয়েক বছর আগে মা’রা গেছেন। বাবার রেখে যাওয়া এক খণ্ড জমি নিজের আশ্রয়স্থল।

জানা যায়, চার ছে’লের মা গু'লবানু। অথচ খোঁজ খবর নেয় না সন্তানরা। একসময়ে মানুষের বাসায় কাজ করে পেট চালাতেন গু'লবানু। করো’’নার কারণে মানুষের বাসায় কাজ বন্ধ। পেটে নেই ভাত, খিদের জ্বা'লায় কেঁদে দেন গু'লবানু বেগম।

এদিকে ছে’লেরাও সকলেই দিন মজুর। এক ছে’লে ভা’রসাম্যহীন বলে এলাকাবাসী জানায়। ভা’রসাম্যহীন ছে’লেটি ছুটে আসে মাঝে মাঝে মায়ের কাছে। আর অন্য ছে’লেরা কেউ খোঁজ নেয় না মায়ের। অনাহারে দিন কাটছে শহরের এই ঝুপড়ির ঘরে।

প্রতিবেশীরা জানায়, এ ঘরে কোন মানুষ থাকে না। আম’রা মাঝে মাঝে খাবার দিলেও সব সময় দিতে পারি না। এদিকে ঘরে চারদিকে নেই বেড়া। পাড়া প্রতিবেশীর সাহায্যে ঘর থেকে বের হয়। বসত ঘরখানা খুবই জরাজীর্ণ অবস্থায়।

ভাঙা পুরাতন টিন, পলিথিন দিয়ে ঢাকা। নেই টয়লেট, ঘরে নেই কোন বিছানা পত্র, বর্ষার সময় সব কিছু ভিজে ন'ষ্ট হয়ে যায়। ঝড় ব’ন্যা হলে অন্যের ঘরে আশ্রয় নিতে হয় গু'লবানুকে।

Facebook Comments
Back to top button