শুধু ভবন পু’ড়েনি, পুড়ে গেছে একটি সাজানো পরিবার

আরমানিটোলার আ’গু'নে শুধু ভবনই পু’ড়েনি, পু’ড়েছে একটি সাজানো পরিবার। ইডেন কলেজের ইংরেজী তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সুমাইয়া পরিবারের সঙ্গে থাকতেন হাজী মু’সা ম্যানশনে। কেমিকেলের আ’গু'নে দম বন্ধ হয়ে মা’রা যান তিনি। আর পরিবারের অন্য ৫ সদস্যও শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটে লড়াই করছেন মৃ'’ত্যুর সঙ্গে। এক মাস আগে বিয়ের অনুষ্ঠানে হাস্যোজ্জল পরিবারের ছবি এক মুহূর্তেই যেন স্মৃ'’তি। অ’পরিকল্পনার আ’গু'নে পু’ড়ে ছাই হয়েছে একটি পরিবারের স্বপ্ন।

বড় মেয়ে শশুর বাড়িতে থাকায় দুই মেয়ে ও এক ছে’লেসহ মেজো জামাই নিয়ে মু’সা ম্যানশনের চতুর্থ তলায় থাকতেন ইব্রাহিম ও সুফিয়া দম্পতি। বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) দিবাগত রাতের আ’গু'নে মা’রা যায় ছোট মেয়ে ইডেন কলেজের ইংরেজী তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী সুমাইয়া।

নি’'হত সুমাইয়ার বোন মুনা ও দুলাভাই আশিক শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের আইসিইউতে রয়েছেন জীবন মৃ'’ত্যুর সন্ধিক্ষণে। আর বাবা মা ও ছোটভাই জুনায়েদের অবস্থাও সংকটাপন্ন।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সেহরির সময় পুরান ঢাকার আরমানিটোলায় ছয়তলা ভবনের নিচতলায় কেমিকেল গু'দামে আ’গু'ন লাগে। এ ঘটনায় চারজনের ম’রদে'হ উ’'দ্ধার করা হয়েছে।

Facebook Comments
Back to top button