নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুরকে বরিশালে বদলি

ঢাকা জে'লা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মো. মামুনুর রশীদকে বরিশাল বিভাগে বদলি করা হয়েছে। লকডাউন চলাকালে গত রোববার রাজধানীর এলিফ্যা'ন্ট রোডে এক চিকিৎসকের পরিচয়পত্র দেখা নিয়ে পু'লিশের সঙ্গে এক চিকিৎসকের বাগ্‌বিতণ্ডার সময় সেখানে এই ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমাণ আ'দালতে দায়িত্বরত ছিলেন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব শেখ ইউসুফ হারুন আজ বৃহস্পতিবার প্রথম আলোকে বলেন, স্বাভা'বিক প্রক্রিয়ায় তাঁকে বদলি করা হয়েছে। তাঁর বদলির বি'ষয়টি আগে থেকেই প্রক্রিয়াধীন ছিল।

গত রোববার এলিফ্যা'ন্ট রোডে ভ্রাম্যমাণ আ'দালত পরিচালনার সময় নিরাপ'ত্তাচৌকিতে দায়িত্ব পালনরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পু'লিশ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক নারী চিকিৎসকের পরিচয়পত্র দেখতে চান। ওই চিকিৎসক নিজের ব্যক্তিগত গাড়িতে করে যাচ্ছিলেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া এক ভিডিওতে দেখা যায় ওই নারী চিকিৎসকের পরিচয়পত্র দেখতে চান পু'লিশ সদস্যরা। ঘটনার সময় উত্তেজিত হয়ে পু'লিশ ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে বাগ্‌বিতণ্ডা করতে দেখা যায় ওই চিকিৎসককে। তাঁকে উত্তেজিত ভঙ্গিতে কথা বলতে শোনা যায়। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা হয়।

এই ঘটনার পর চিকিৎসকদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) ও বাংলাদেশ পু'লিশ সার্ভিস অ্যাসোসিয়েশন পাল্টাপাল্টি বিবৃতি দেয়।
চিকিৎসকের দাবি, চিকিৎসককে ইচ্ছা করে হয়রানি করা হয়েছে। তাঁর গাড়িতে লকডাউনের সময় হাসপাতালে কাজ করার আদেশনামা ছিল, পরনে অ্যাপ্রোন ছিল এবং গাড়িতে হাসপাতালের স্টিকার লাগানো ছিল। আর পু'লিশের পক্ষের দাবি, চিকিৎসক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পু'লিশকে ‘তুই’ বলে সম্বোধন করেছেন এবং গা'লি দিয়েছেন। তিনি নিজ মন্ত্রণালয়ের বৈধ আদেশ ল'ঙ্ঘন এবং ম্যাজিস্ট্রেট ও পু'লিশের সঙ্গে অ'সদাচরণের অ'ভিযোগে চিকিৎসকের বিরু'দ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানানো হয় পু'লিশের বিবৃতিতে।

এর আগে বিএমএ স্বরা'ষ্ট্রমন্ত্রীকে লেখা এক চিঠিতে এলিফ্যা'ন্ট রোডে চিকিৎসককে হে'নস্তায় জড়িতদের দ্রুত চিহ্নিত করে বিভাগীয় শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানিয়েছিল।

ওই দিনের ঘটনার পর স্বাস্থ্য অধিদ'প্ত র সংবাদ ব্রিফিংয়ে চিকিৎসকদের পরিচয়পত্র সঙ্গে রাখার জন্য আহ্বান জানিয়েছে। চেকপোস্টে ‘চাহিবামাত্র তা প্রদর্শনেরও’ অনুরোধ করেছে।

Facebook Comments
Back to top button