মামুনুলকে গ্রে’ফতার করায় ফেসবুকে জিহাদের ঘোষণা, যুবক গ্রে’ফতার

হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রে'’ফতারের প্রতিবাদে ফেসবুকে জিহাদের আহ্বান জানানোর অ’ভিযোগে মাগু’রায় শাহীন বিপ্লব (২১) নামে এক যুবককে গ্রে'’ফতার করেছে পুলিশ।

ডিজিটাল নিরাপ'’ত্তা আইনে করা মাম’লায় সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে উপজে’লার বালিদিয়া ইউনিয়নের বড়রিয়া গ্রামের পশ্চিম পাড়ার নিজ বাড়ি থেকে মহম্ম’দপুর থা’না পুলিশ তাকে গ্রে'’ফতার করে। মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) তাকে আ’দালতের মাধ্যমে কারা'’গারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় মহম্ম’দপুর থা’নায় শাহীন বিপ্লবের বিরু’'দ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে মাম’লাটি করেন।

গ্রে'’ফতার শাহীন বিপ্লব মাগু’রার মহম্ম’দপুর উপজে’লার বড়রিয়া পশ্চিমপাড়া এলাকার শাহজাহান সর্দারের ছেলে। তিনি ফরিদপুর সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণীর ছাত্র ও ছাত্রদলকর্মী।

মাম’লার বিবরণে জানা গেছে, হেফাজত নেতা মামুনুল হককে গ্রে'’ফতারের পর নিজের ফেসবুক টাইম’লাইনে তার গ্রে'’ফতারের বিরোধিতা করে স্ট্যাটাস দেন শাহীন। স্ট্যাটাসে বলা হয়, আল্লামা মামুনুল হককে গ্রে'’ফতার করো’নি, হৃদয়ে আঘা’ত করেছ। আর ছাড় দেওয়া হবে না। এতো বড় দুঃসাহস তোমা’দেরকে কে দিয়েছে। এখন শুধু একটি জিহাদের ঘোষণার অ’পেক্ষায় আছি। স্ট্যাটাস থেকে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে জিহাদে আসার আহ্বান জানানো হয়।

পুলিশ জানায়, গত সোমবার (১৯ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১টার সময় জানতে পারি শাহিন বিপ্লব তার ফেসবুক আইডিতে জিহাদ করার নামে আ’ক্রমণাত্মক মিথ্যা, ভীতি প্রদর্শক ও দেশ বিরোধী বিভিন্ন লেখা পোস্ট করেছে।

সে এলাকায় বি’ভ্রা’ন্তিকর তথ্য ছড়ানোসহ আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর পায়তারা করছে। পরে শাহীন বিপ্লবসহ আরও সাত থেকে আট’জনের নামে মাগু’রার মহম্ম’দপুর থা’নায় ডিজিটাল নিরাপ'’ত্তা আইনে মাম’লা করার পর গ্রে'’ফতার করা হয়।

মহম্ম’দপুর থা’নার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, একাধিক রা’'ষ্ট্রবিরোধী, উ’স্কা’নিমূলক, মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন লেখা প্রচার করেছেন শাহীন বিপ্লব। ফলে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিন’'ষ্ট, সমাজে বিশৃঙ্খলা ঘটার সম্ভাবনা সৃ’'ষ্টি হয়।

মহম্ম’দপুর থা’নার ভারপ্রা’'প্ত কর্মক’র্তা (ওসি) তারক বিশ্বা’স বলেন, পুলিশের দায়ের করা ডিজিটাল নিরাপ'’ত্তা আইনের মাম’লায় শাহীন বিপ্লবকে গ্রে'’ফতার করা হয়েছে। তাকে আ’দালতে পাঠানো হয়েছে।

Facebook Comments
Back to top button