সরকারি টাকায় মাদ্রাসা গড়ে, সরকারের বিরোধীতা করে মামুনুলরা: এসিল্যান্ড কেরানীগঞ্জ

সরকারি টাকায় মা'দ্রাসা গড়ে, সরকার বিরোধীতা করে মামুনুল হকরা এমন মন্তব্য করে নিজের ফেইসবুক টাইম'লাইনে একটি স্ট্যাটাস পোস্ট করেছেন, কেরানীগঞ্জের সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাম’রুল হাসান সোহেল।

সোমবার (১৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা সোয়া সাতটার দিকে তিনি তার ব্যক্তিগত ফেইসবুক টাইম'লাইনে এই পোস্টটি করেন।

নিচে কাম’রুল হাসান সোহেল এর টাইম'লাইনে উল্লেখিত পোস্টটি পাঠকদের জন্য হুবহু তুলে ধ’রা হলো-

আল্লামা মামুনুল হক সাহেবের সেকেন্ড হোম কেরানীগঞ্জ উপজে’লা। এখানে তার বাবার কবর এবং তাদের নিয়ন্ত্রিত বেশ কয়েকটি মা'দ্রাসা ও ম’সজিদ রয়েছে।

একদিন শুক্রবার ইউএনও স্যার ফোনে জানালেন যে, ধ’র্ম প্রতিমন্ত্রী মহোদয় কেরানীগঞ্জ উপজে’লায় আসবেন,তার প্রটোকলে যেতে হবে ঘাটারচর নামক স্থানে।যথা নির্দেশে আমি মন্ত্রী মহোদয়কে রিসিভ করার জন্য মামুনুল হক সাহেবদের ম’সজিদে যাই। মন্ত্রী মহোদয়কে স্বাগত জানানোর সময় দেখলাম কেরানীগঞ্জ এর স্থানীয় এমপি স্যারও এসেছেন সাথে।

কিছুক্ষন পর ইউএনও স্যারও যোগ দিলেন আমা'দের সাথে।ম’সজিদে নামাজ পূর্ববর্তী সভা শুরু হলো। সভা’র শেষ দিকে ম’সজিদ উন্নয়নের জন্য টাকা তোলার পর্ব শুরু হলো, সাবেক ধ’র্ম প্রতিমন্ত্রী মহোদয় অনুরোধ জানালেন সুধীজনদের অর্থ সহায়তা দেয়ার জন্য। একে একে প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকা উঠল।অর্থদাতাদের মধ্যে ছিলেন মোহাম্ম’দপুরের এমপি মহোদয়ের ঘনিষ্ঠজন,সারা বিল্ডার্সের চেয়ারম্যান,হাম’দর্দ গ্রুপ এবং স্থানীয় আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ।

উপজে’লা প্রশাসনকে দায়িত্ব দেয়া হলো মাটি ভরাট করে দেয়ার জন্য। কয়েকদিন আগে প্রায় ২ লক্ষ টাকা খরচ করে মাটি ভরাটের কাজ করা হয়েছে। এভাবে সরকার এবং সরকার দলীয় মানুষজনের টাকায় গড়ে ওঠে মামনুল হক সাহেবদের মা'দ্রাসা। এরাই সহিং’সতার মাধ্যমে সরকারের ভিত নাড়িয়ে দেয়ার আ’ন্দোলনে শরীক হয়! এই সকল অনুদানের মা'দ্রাসার ছাত্রদেরকে মানব বর্ম বানিয়ে ধ্বং'সযজ্ঞ চালানো হয়। এটাই আমা'দের দুর্ভাগ্য।

Facebook Comments
Back to top button