প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে আইসিইউ পেলেন কবরী

বাংলা চলচ্চিত্রের ‘মি'ষ্টি নায়িকা’ কবরী করো’’নায় আ’ক্রা'ন্ত হয়ে কুর্মিটোলা হাসপাতা’লে ভর্তি ছিলেন। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে স্থা’নান্তরের কথা বলা হয়। কিন্তু কোথাও আইসিইউ বেড খালি পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্ত'ক্ষেপে কিংবদন্তি এ নায়িকার আইসিইউয়ের ব্যবস্থা হয়েছে।

কবরীর ব্যক্তিগত সহকারী নূর উদ্দিন সারাবাংলাকে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) ভোর রাত থেকে তার অক্সিজেন লেভেল কমতে থাকে। ডাক্তাররা ওনাকে আইসিইউতে স্থা’নান্তরের কথা বলেন। কিন্তু কোথাও আইসিইউ পাচ্ছিলাম না। পরবর্তীতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে আমা'দের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওনার জন্য আইসিইউয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে।’

তিনি জানান, কবরীকে বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা ১৫ মিনিটের দিকে রাজধানীর শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভা’র হাসপাতা’লে নিয়ে আসা হয়েছে। তাকে এখানকার আইসিইউতে রাখা হয়েছে।

কবরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন বলে জানালেন নূর উদ্দিন।

এর আগে বুধবার (৭ এপ্রিল) তার ফুসফুস কতটুকু আ’ক্রা'ন্ত তা দেখার জন্য সিটি স্ক্যান করা হয়। সেটির রিপোর্ট এসেছে। তবে এখনও ডাক্তাররা তা দেখননি।

জ্বর ও হালকা কাশি হলে নিজ উদ্যোগে করো’’নার পরীক্ষা করান কবরী। এরপর ৫ এপ্রিল পরীক্ষার ফল পজেটিভ আসলে তিনি কুর্মিটোলা হাসপাতা’লে ভর্তি হন।

১৯৬৪ সালে সুভাষ দত্ত পরিচালিত ‘সুতরাং’ ছবির মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে অ’ভিষেক হয় কবরীর। উপহার দিয়েছেন ‘বাহানা’, ‘তিতাস একটি নদীর নাম’, ‘রংবাজ’, ‘সারেং বউ’, ‘সুজন সখী’সহ অ'সংখ্য কালজয়ী চলচ্চিত্র।

তিনি আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ সদস্য হয়েছিলেন। অ’ভিনয়ের পাশাপাশি চলচ্চিত্র পরিচালনা, প্রযোজনা করেছেন। তার পরিচালিত প্রথম ছবির নাম ‘আয়না’।

সম্প্রতি তিনি পরিচালনা করেছেন তার দ্বিতীয় ছবি ‘এই তুমি সেই তুমি’। ছবিটি সরকারি অনুদানে নির্মিত হচ্ছে।

Facebook Comments
Back to top button