হযরত মু’হাম্মদ (স:) কে অব,মাননা করলে মৃ’ত্যুদণ্ডের আইন জারি করছে ব্রু,নাই!

হজরত মুহাম্মা'দ সাল্লা,ল্লাহু আলা,ইহি ওয়াসাল্লামের প্র,তি অবমান,না এ,বং সমকা,মিতার অ’পরাধে মৃ'ত্যুদ,ণ্ডের বিধা,ন রেখে ইসলামি শরীয়া আইন জারি করতে যা,চ্ছে ব্রু,নাই সরকার।

নতুন শরী,য়া আইনে চু,রির শা,স্তি হিসেবে অঙ্গচ্ছে,দের বি,ধান থাকছে। নতুন আইন অনুযা,য়ী ধxxণ, ব্যভিচার, ব্যবচ্ছেদ, ডা'কাতি এবং মহানবী হজরত মুহাম্মা'দ সা,ল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লা,মের প্র,তি অব,মাননা ও মান,হানিকে মৃ'ত্যুদ,ণ্ডযোগ্য করা হয়েছে। আ,র গ'র্ভ,পাতের জ,ন্য শা,স্তি হবে চুরির মতো অঙ্গ,চ্ছেদ।

১৮ বছরের কম বয়সী মুসলমান শিশু,দের ইসলাম ছাড়া অ,ন্য ধর্মে,র শিক্ষা গ্রহ,ণের জ,ন্য প্ররো,চিত বা উত্সা,হিত করা,টাকে অ’পরা,ধমূলক দ,ণ্ড হিসেবে ঘো,ষণা করা হয়েছে। আইন বেশিরভাগ মুসলমানদের ক্ষে,ত্রে প্রযোজ্য, য,দিও কি,ছু দিক অমুস,লিম'দের ক্ষে,ত্রে প্র,যোজ্য হবে।বুধবার এই সি'দ্ধা,ন্তের কথা ঘো,ষণা করেন দক্ষি,ণ পূর্ব এশিয়ার,

ব্রু,নাই এর সুলতান হাসান আল-বলখাই। বুধবার জাতির উদ্দে,শ্যে এক ভা,ষণে তিনি বলেন, আমি ইসলামিক শিক্ষা,কে এই দেশে শক্তি,শালী করতে চাই। নতুন আইন অনুযায়ী সমকা,মিতার শা,স্তির জ,ন্য চারজন প্রত্যক্ষ,দর্শী সা,ক্ষীর প্র,য়োজন হবে। দে,শটিতে আগেই সমকামিতা,কে শাস্তি,যোগ্য অ’প,রাধ করা হয়েছে।

বর্ত,মানে সমকামি,তার জ,ন্য শা,স্তি রয়েছে ১০ বছরের কা,রাদ'ণ্ড। সুলতান শাসিত দ্বী,প রা,'ষ্ট্র ব্রু,নাই বর্ত,মানে অর্থনৈতি,কভাবে বেশ সমৃ','দ্ধ। তারা বিপুল পরিমান তেল ও গ্যা,স র'প্ত া,নি করে থাকে।সুলতান এর বয়স বর্ত,মানে ৭২ বছর। যিনি ব্রু,নাই এর বিনি,য়োগ সং,স্থার প্রধান। বি,শ্বের কি,ছু শী,র্ষ হোটেলের মালিক তিনি।

যার ম,ধ্যে রয়েছে ল,ন্ডনের ড,র্চেস্টার হোটেল ও লস অ্যা,ঞ্জে'লসের বিবিয়ার,লি হিলস হোটেল। চার লাখ ২০ হাজার জনসং,খ্যার এই দেশে মুসলমান রয়েছে দুই তৃতী,য়াংশের মতো। ব্রু,নেইতে মৃ',ত্যুদ'ণ্ড থাকলেও ১৯৫৭ সালের পর তা দ'ণ্ড হিসেবে কার্য,কর করা হয়,নি। দেশ,টি প্রথম শরী,য়া আইন চালু করে ২০১৪ সালে। তখন সাধা,রণ ও শরী,য়া দু’ধরনের আই,নই বহাল রাখা হয়।

এখন আগামী কয়েক বছরের ম,ধ্যেই নতুন এই দ'ণ্ডবি,ধি কার্যক,রের ঘো,ষণা দিয়েছেন সুলতান।প্রথম দফা,য় কারা',দ'ণ্ড ও অর্থদ'ণ্ডের মতো শা,স্তি সমূহ ২০১৪ সাল থেকে চালু করা হয়। তখন অঙ্গচ্ছে,দ ও পাথর নিক্ষে,পের মতো আইন,গু'লো পর,বর্তী দুই ধাপে কা,র্যকর করার কথা বলা হয়েছিল।

Facebook Comments
Back to top button