রং নয়, প্রাকৃতিক উপায়ে সাদা চুল কালো করুন

চুল সাদা হয়ে যাওয়া খুবই সাধারণ ব্যাপার। তবে কালো চুলগু'লো সাদা হয়ে গেলে মন খারাপ হয়ে যায় সবার। ত অনেকেই আছেন অকালে চুল পেকে যাওয়ার সমস্যায় ভোগেন। আমর'া সাধারণত ভাবি যে, বয়স বাড়লেই বুঝি চুল পেকে যেতে পারে। আসলে যে কোনো বয়সেই চুল সাদা হয়ে যেতে পারে।

অনেক কারণেই চুল সাদা 'হতে পারে। হরমোনের সমস্যা, বংশগত, ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, অতিরিক্ত কেমিকেল পণ্য ব্যবহারের জন্যও চুল সাদা 'হতে পারে। সেক্ষেত্রে বাজার চলতি হেয়ার কালার ব্যবহার না করার সি'দ্ধান্তই দেন অনেকে। আসলে ক্ষ'তিকারক রাসায়নিক থেকে মা'রাত্মক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঝুঁকি কিন্তু থেকেই যায়। তবে পাকা চুল নিয়ে দু:খ না করে এই সমস্যা থেকে রেহাই পেতে কাজে লাগান কিছু অব্য'র্থ ঘরোয়া প্রতিকার।

চলুন জেনে নেয়া যাক সেসব-
আমলকির উপকারের কথা সবারই জানা আছে। এই প্রাকৃতিক খাদ্য উপাদানটি পাউডার ও তেল দুইভাবেই ব্যবহার করা যায়। আম'লা তেল চুলের কালো রং ধরে রাখতে সাহায্য করে এবং পাউডার চুলকে খুশকি মুক্ত রাখতে ব্যবহার করা যায়। আমলকির গু'ঁড়ার সঙ্গে পাতিলেবুর রস মিশিয়ে প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট চুলের গোড়ায় মালিশ করুন। তারপর ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। পাকা চুলের সমস্যায় দ্রুত উপকার পাবেন।

পেঁয়াজ এবং রসুন চুল শুধু কালোই করে না, চুল পড়া, খুশকিও দূর করে। এজন্য পেঁয়াজ বেটে প্রতিদিন চুলের গোড়ায় মালিশ করুন। ৩০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই পাকা চুলের সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

বাদামের তেল চুলের জন্য খুবই উপকারী। সুন্দর চুল ধরে রাখতে বাদাম খাওয়ার পাশাপাশি বাদামের তেল চুলে লাগালে চুল স্বাস্থ্যজ্জ্বল হয়ে উঠে। পাকা চুলের সমস্যা থেকে রেহাই পেতে হলে প্রতিদিন নারকেল তেলের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে চুলের গোড়ায় মা খু'ন। স'প্ত াহ দুয়েকের মধ্যেই পাকা চুলের সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

ছোলা বি১২ ও ফোলিক এ'সিডে ভরপুর। তাই সকালে খালি পেটে ছোলা খাওয়া স্বাস্থ্য ঠিক রাখার পাশাপাশি চুল কালো করার জন্যে যথে'ষ্ট উপাদেয়। সাদা চুল কালো করতে ব্যবহার করতে পারেন মেহেদি। চুল ধূসর হয়ে যাওয়া ঠেকাতে সরিষা তেলের সঙ্গে মেহেদি পাতা বেটে অথবা গু'ঁড়া মিশিয়ে স'প্ত াহে অন্তত দুইদিন লাগান। দেখবেন চুল পেকে যাওয়ার সমস্যা কমে যাবে। সেই সঙ্গে সাদা চুলগু'লোও আর দেখা যাচ্ছে না।

Facebook Comments
Back to top button