আমি ব্যথা পাই নাই, ওইটা ছিল অভিনয় : কুদ্দুস বয়াতি

ফেসবুকে একটি ছবি ছড়িয়ে পড়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, করো’’না ভ্যাকসিন নিতে গিয়ে প্রচণ্ড ব্য’থায় কুঁকড়ে গেছেন কুদ্দুস বয়াতি। আর এই ছবিটাই ফেসবুকে হোমপেজজুড়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। এই ছবিটিকে টিকা নেওয়ার ছবি না, মজা করে অ’ভিনয় করেছেন বলে কালের কণ্ঠকে জানালেন কুদ্দুস বয়াতি।

কুদ্দুস বয়াতি বলেন, ‘আমি টিকা নিছি, এখন আমি আমা’র গানের জগতে ফিরব। আমা’র খুব আনন্দ হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আমি ধন্যবাদ জানাই, তিনি সাধারণ মানুষকে বিনা মূল্যে টিকা নেওয়ার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। আমা’র প্রধানমন্ত্রী আমা’দের দুঃখী মানুষদের দুঃখ বোঝেন, আমি কৃতজ্ঞ- আপনারা একটু লেইখা দিবেন।’

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় কুদ্দুস বয়াতি টিকা নেন। সেই টিকা কেন্দ্র থেকেই কুদ্দুস বয়াতির তোলা ওই ছবিটি ভাইরাল হয়ে যায়। একজন মেডিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্ট ছবিটি তুলেছেন, তিনি যে ছবিটি ফেসবুকে ছেড়ে দেবেন সেটা জানতেন না।

ভাইরাল ছবির ব্যাপারে কুদ্দুস বয়াতি কালের কণ্ঠকে বললেন, ‘আরে না, ভ্যাকসিন নেওয়ার সময় অ’ভিনয় করতাছিলাম। ভ্যাক্সিন আমা’র আগেই নেওয়া হইছিল। আমি একটুও ব্য’থা পাই নাই। ভ্যাকসিন নিতে ব্য’থা নাই। বোঝাও যায় না। আমা’র যে ছবিটা ফেসবুকে ছাড়ছে শুনলাম, ওইটা কামটা ঠিক করে নাই। কেউ যে ছবি তুইল্লা ছাইড়া দিব জানতাম না। আরো ভালো জানতে পারবেন, আমা’র পোলা আমা’র টিকা নেওয়ার ভিডিও ছাড়ব ইউটিউবে। ওইটার জন্যই একটু অ’ভিনয়ও করছি।’

কুদ্দুস বয়াতি সরকারের যেকোনো উদ্যোগকে ইতিবাচকভাবে নেন। গত বছর ধান কা’টার সময় যখন লোকজন পাওয়া যাচ্ছিল না, তখন উৎসাহ দিতে ধান কাটতে নেমে পড়েছিলেন, সেই স’ঙ্গে গান বেঁধে জনগণকে আগ্রহী করেছিলেন ফসল ঘরে তোলার জন্য।

কুদ্দুস বয়াতি সে সময় বলেছিলেন, ‘করো’’নাভাইরাসের কারণে কৃষকরা এখন বিপাকে আছেন। এই মুহূর্তে তাঁদের পাশে দাঁড়ানো আমা’দের দায়িত্ব। কৃষকদের উৎসাহ দিতেই আমি তাঁদের স’ঙ্গে ধান কা’টা শুরু করেছি। সবাইকে আহ্বান জানাব, এই সময়টায় কৃষকদের ধান কে’টে দিয়ে সাহায্য করার জন্য। কৃষক বাঁচলেই বাঁচবে বাংলাদেশ।’

Facebook Comments
Back to top button