ভিন্নভাবে ভালোবাসা দিবস পালন করলেন তারা

গতানুগতিকতার বাইরে গিয়ে একটু ভিন্নভাবে ভালোবাসা দিবস পালন করেছেন বরিশালের কিছু উদ্যামী তরুণ-তরুণী। নগরীর বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে থাকা মানসিক ভা’রসম্যহীন মানুষদের সেবা–যত্ন করে তাদের প্রতি ভালোবাসা প্রদর্শন করেছেন তারা। এই কার্যক্রম দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়লে এ শ্রেণির মানুষ উপকৃত হবে বলে মনে করেন সুশীল সমাজ।

বরিশালের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন “আহার” এর সদস্যরা বসন্ত ও ভালোবাসা দিবস উপলক্ষে সকাল থেকেই ছোট ছোট ভাগে বিভক্ত হয়ে নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে খুঁজে বেরিয়েছে মানসিক ভা’রসাম্যহীন মানুষদের। যাকে যেখানে পাওয়া গেছে বুঝিয়ে-শুনিয়ে সেখান থেকে নিয়ে যওয়া হয় নগরীর সিটি কলেজ চত্বরে। এরপর চুল-দাড়ি কে’টে গোসল করিয়ে নতুন পোশাক ও খাবার দেয়া হয়।

“আহার” এর সভাপতি আল-আমিন হাওলাদার বলেন, এসব মানুষদের জন্য আরও কিছু করার কথা ভাবছে সংগঠনের সদস্যরা। তবে সংকট আছে অর্থের।

এ কার্যক্রম দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়লে মানুসিক ভা’রসম্যহীন মানুষ উপকৃত হবে বলে মনে করেন বরিশাল উদীচীর সভাপতি সাইফুর রহমান মিরন।

করোনার শুরুতে মানসিক ভা’রসাম্যহীন, ছিন'্নমূল ও অ'সহায় মানুষের খাবার দেয়া শুরু করে ৬ শিক্ষার্থী। এরপর তারাই গঠন করে “আহার” নামের সংগঠন। বর্তমানে বরিশালে এই সংগঠনের সদস্য অর্ধশত। দেশের ১৪ জে’লায় এদের সংখ্যা দুই শতাধিক।

একটুখানি সেবা-যত্নে তাদের চেহারা পাল্টে গেছে অনেকটাই। আদর-যত্ন আর ভালোবাসা প্রতিদিন পেলে হয়তো এদের সমস্যার ও সমাধান 'হতে পারত। কিন্তু এই দায়িত্ব নেবে কে? ভালোবাসার এ দিনটি আসুক এদের জন্য অন্তত প্রতিদিন।

Facebook Comments
Back to top button