পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরা হলো না মোস্তাফিজুরের

মোস্তাফিজুর রহমান কল্লোল (২৫)। চাকরি করেন মা’দকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরে। বর্তমানে সাতক্ষীরায় কর্মর'’ত। মাস্টার্স পরীক্ষায় অংশ নিতে ছুটিতে বাড়িতে এসেছিলেন। বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে ভ’য়াবহ সড়ক দু’র্ঘটনায় নি’'হত ১০ জনের মধ্যে একজন মোস্তাফিজুর।

যশোর এমএম কলেজের রা’'ষ্ট্রবিজ্ঞানের ছাত্র মোস্তাফিজুরের বুধবার মাস্টার্স পরীক্ষা ছিল। পরীক্ষা শেষ করে বাড়ি ফিরছিলেন। পথে সড়ক দু’র্ঘটনায় তিনি প্রাণ হারান।

নি’'হত মোস্তাফিজুর রহমান কালীগঞ্জ উপজে’লার ত্রিলোচনপুর ইউনিয়নের সুন্দপুর গ্রামের ইছাহক মণ্ডলের ছেলে।

বুধবার সন্ধ্যায় অ্যাম্বুলেন্সে করে তার মর'’দে’হ গ্রামের বাড়িতে পৌঁছায়। তাকে এক নজর দেখতে হু’মড়ি খেয়ে পড়ে এলাকার মানুষ। তার অকাল মৃ'’ত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে বাসের স’ঙ্গে ট্রাকের সং’ঘর্ষে ১০ জন নি’'হত হয়েছেন। এতে কমপক্ষে ৩৫ জন আ’'হত হয়েছেন। বুধবার ‘'বিকেল ৩টার দিকে যশোর-ঝিনাইদহ সড়কের বারোবাজার নামক স্থানে এ ‘'হতা’'হতের ঘটনা ঘটে।

প্রাথমিকভাবে নি’'হতদের মধ্যে চারজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন-কালীগঞ্জ উপজে’লার মোস্থাফিজুর রহমান (২৫), চুয়াডা’ঙ্গার ডি’ঙ্গেদহের রেশমা (২৫), চুয়াডা’ঙ্গার আলমডা’ঙ্গা উপজে’লার নাকদহের ওলিউল আলম (২৬) ও ঝিনাইদহ সদরের ইউনুচ আলী (২৬)।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বুধবার জে কে পরিবহনের একটি বাসযাত্রী বাস নিয়ে কু’'ষ্টিয়ার দিকে যাচ্ছিল। বাসটি বারোবাজার পার হয়ে আমজাদ আলী ফিলিং স্টেশনের সামনে পৌঁছালে রাস্তার ওপর থাকা যাত্রীকে বাঁচাতে গিয়ে ব্রেক করে। এতে বাসটি উল্টে রাস্তার ওপরে পড়ে যায়। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক বাসের মাঝামাঝি সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে যাত্রীবাহী বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার ওপর আড়াআড়ি হয়ে উল্টে পড়ে এবং ঘটনাস্থলেই ১০ জন প্রাণ হারান।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত এক প্রত্যক্ষদর্শী জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি রাস্তার পাশে ধানক্ষেতে কাজ করছিলাম। এসময় রাস্তার পার হচ্ছিলেন এক ব্যক্তি। এসময় দ্রুতগতিতে আসা যাত্রীবাহী বাসটি তাকে বাঁচাতে গিয়ে ব্রেক করে। এতে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ‘'বিকট শব্দে রাস্তার ওপরে আড়াআড়িভাবে উল্টে পড়ে। এসময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি দ্রুতগতির ট্রাক বাসের মাঝামাঝি ধাক্কা মা’রে। এতে বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এসময় ট্রাকটি পালিয়ে যেতে সক্ষ’ম হয়।’

Facebook Comments
Back to top button