দুপুরে পাওয়া সরকারি গরুর রাতে মৃ’ত্যু! হবে ‘ময়না’তদ’ন্ত’

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে দুপুরে পাওয়া সরকারি অনুদানের গরু রাতেই মর'’ে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। শনিবার উপজে’লার মাধাইনগর ইউনিয়নের ক্ষুদ্র মাধাইনগর গ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর বাসিন্দা মালতী রানী উরাঁও এর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে তাড়াশে সরকারি অনুদানে সরবরাহ করা অধিকাংশ গরুই রু’'গ্ন বলে অ’ভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, গত শনিবার প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় থেকে সমতল ভূমিতে অনগ্রসর ক্ষুদ্র নৃ- গোষ্ঠীর আর্থ সামাজিক ও জীবন মানোন্নয়নের লক্ষ্যে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ প্রকল্পের আওতায় নির্বাচিত সুফলভোগীদের মাঝে প্যাকেজ ভিত্তিক অনুদানের গরু বিতরণ করা হয়। এ সময় তাড়াশ উপজে’লার সাতটি ইউনিয়ন থেকে অনগ্রসর ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর বাছাইকৃত ৩৯জনকে শনিবার দুপুরে গরু দেওয়া হয়।

সেখানে মাধাইনগর ইউনিয়নের ক্ষুদ্র মাধাইনগর গ্রামের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর বাসিন্দা বিরেন্দ্রনাথ উরাঁও’র স্ত্রী মালতী রানী উরাঁও ওই অনুদানের একটি গরু পান। কিন্তু মালতী রানীর পাওয়া গরুটি শনিবার রাত ৩টার দিকে মা’রা য়ায়।

খবর পেয়ে রবিবার সকালে তাড়াশ প্রাণিসম্পদ হাসপাতালের ভাটেনারি সার্জন ডা. মো. শরিফুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃ'’ত ওই গরুর ময়নাত’দন্ত করেন। তিনি জানান, গরুটির মৃ'’ত্যুর প্রকৃত কারণ জানতে গরুর যকৃত, হৃদপিন্ড, ফুসফুস, পাকস্তলী সংগ্রহ করা হয়েছে। যা ঢাকার ল্যাব’ে পাঠানো হবে। তবে প্রাথমিকভাবে তিনি ধারণা করছেন গরুটির ক্ষুরা রোগ হয়ে থাকতে পারে।

তাড়াশ ইউএনও মেজবাউল করিম বলেন, বি’ষয়টি জেনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তাড়াশ প্রাণিসম্পদ কর্মক’র্তা ডা. সোহেল আলম বলেন, গরুটি মর'’ে যাওয়ার কারণে ঠিকাদার মালতী রানীকে আরেকটি গরু কিনে দেবেন।

Facebook Comments
Back to top button