ট্রাম্পকে গোয়েন্দা তথ্য দিতে নারাজ বাইডেন

মা'র্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, তিনি তার পূর্বসূরী অর্থাৎ দেশটির সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে গোয়েন্দা তথ্য দিতে চান না। ট্রাম্পের বেখেয়ালী আচরণের কারণে তাকে নিরাপ'ত্তা সংক্রা'ন্ত তথ্য দেয়া উচিত নয় বলেই মনে করেন তিনি। খবর বিবিসির।

যুক্তরা'ষ্ট্রে সাবেক প্রেসিডেন্টদের জাতীয় নিরাপ'ত্তা সংক্রা'ন্ত বিভিন্ন তথ্য জানানোর নীতি রয়েছে। সে অনুযায়ী, যুক্তরা'ষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে এখন থেকে বিভিন্ন ধরনের গোয়েন্দা তথ্য জানান অধিকার রাখেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

সম্প্রতি সিবিসি নিউজের এক সাক্ষাতকারে বর্তমান প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে প্রশ্ন করা হয় যে, সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গেও একই রকম সৌজন্য রক্ষা করা হবে কীনা এবং তিনি গোয়েন্দা তথ্য পাবেন কীনা। এ বি'ষয়ে প্রেসিডেন্ট বাইডেন বলেন, আমি সেটা মনে করি না।

তিনি বলেন, ট্রাম্পের বেখেয়ালী আচরণের কারণেই তার গোয়েন্দা তথ্য পাওয়া উচিত নয়। তিনি বলেন, আমি মনে করি না যে, ট্রাম্পকে গোয়েন্দা বিফ্রিং দেয়ার প্রয়োজন আছে। প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষ'মতা গ্রহণের পর প্রথমবার সাক্ষাতকারের মুখোমুখি হয়ে এভাবেই ট্রাম্পের বি'ষয়ে কথা বলেছেন বাইডেন।

ট্রাম্পকে গোয়েন্দা প্রতিবেদন দেখার অনুমতি দেওয়া হলে কি 'হতে পারে সে বি'ষয়ে বাইডেনের সবচেয়ে খারাপ আশ'ঙ্কা কী হবে তা নিয়ে তিনি কিছু বলতে অ'স্বীকৃতি জানিয়েছেন। কিন্তু এটা পরামর'্শ দিয়েছিলেন যে, এই সাবেক প্রেসিডেন্টকে গোপ'নীয় কোনো তথ্য জানালে তিনি তা নিজের মধ্যে রাখতে পারবেন না।

তাকে গোয়েন্দা তথ্য দিলে তিনি যদি এ বি'ষয়টি প্রকাশ করেন বা ভুলক্রমে কোনো তথ্য ফাঁ'স করে দেন তাহলে? এই প্রথম কোনো সাবেক মা'র্কিন প্রেসিডেন্টকে গোয়েন্দা তথ্য দেয়া হবে কিনা সে বি'ষয়ে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব শুরু হয়েছে। এর আগে কোনো প্রেসিডেন্টকে তথ্য দেয়ার বি'ষয়ে কোনো ধরনের আশ'ঙ্কা ছিল না।

ট্রাম্প তার চার বছরের ক্ষ'মতায় প্রতিনিয়ত বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে বিবাদে জড়িয়েছেন। এমনকি জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থায় তার সময়ে ৬ জন পরিচালক বদল হয়েছে। ২০১৬ সালের মা'র্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্ত'ক্ষেপের বি'ষয়ে গোয়েন্দা সংস্থাগু'লোর প্রতিবেদন নিয়েও সন্দে'হ প্রকাশ করতে দেখা গেছে তাকে।

Facebook Comments
Back to top button