টাকা নেই, রাস্তাকেই স্লে’ট বানিয়ে লেখাপড়া!

করো’নাভাইরাস মহামা'রির কারণে বন্ধ স্কুল-কলেজ। ক্লাস চলছে অনলাইনে। কিন্তু যাদের স্মা'র্টফোন, ল্যাপটপ, ইন্টারনেট নেই, তাদের উপায় কী? অর্থের অভাবে কি লেখাপড়া থেমে থাকবে?

না! কথায় আছে, ইচ্ছা থাকলে উপায় হয়। এই সমস্যার ক্ষেত্রে সেই উপায়টাই বের করে দেখাল ভারতের একটি প্রত্যন্ত গ্রামের ছেলেমেয়েরা। অর্থের অভাবে অনলাইন ক্লাসে যোগ দিতে না পারলে কী হবে, তাদের জন্য বিশাল রাস্তাটাই হয়ে উঠেছে শেখার ময়দান।

মধ্যপ্রদেশের বেতুল জে'লার সিমোরি গ্রামে গেলে দেখা যাবে, রাস্তার মধ্যে বসেই লেখাপড়া করছে ছোট ছোট শিশুরা। রঙ-বেরঙের চক দিয়ে কেউ লিখছে নামতা, কেউ যোগ-বিয়োগের অংক করছে, কেউ লিখছে ইংরেজি।

দারিদ্র্যসীমা'র নিচে বসবাস করা পরিবারের ছেলেমেয়েদের অর্থাভাবে যেন পড়াশোনা বন্ধ না থাকে, সেকথা ভেবেই সিমোরি গ্রামে শুরু হয়েছে কমিউনিটি ক্লাস। সেখানে খেলার ছলেই রাস্তার ওপর লেখাপড়া করছে শিশুরা।

তাদের সাহায্য করছে স্থানীয় একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন স্থানীয় শিক্ষকরাও। এই প্রসঙ্গে শৈলেন্দ্র বিহারিয়া নামে এক শিক্ষক বলেন, এই রাস্তায় আগে ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা খেলাধুলা করত। কেউ খেলত, কেউ হয়তো সাইকেল চালাত। আমর'া সেখানেই ওদের পড়াশোনার ব্যবস্থা করেছি।

স্থানীয় একটি এনজিওর সদস্য মমতা গোহার বলেন, আমর'া শিশুদের বিনামূল্যে সাদা এবং রঙিন চক দিয়েছি। এই অ'ভিনব প'দ্ধতিতে লেখাপড়া গোটা এলাকায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

শুধু এলাকাবাসী নয়, এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই অ'ভিনব প'দ্ধতির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন আরও অনেকে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভূয়সী প্রশংসা কুড়াচ্ছে প'দ্ধতিটি। নেটিজেনরা স্থানীয় উদ্যোক্তাদের এই প্রয়াসকে শ্র'দ্ধাভরে সমর'্থন জানিয়েছেন।

Facebook Comments
Back to top button