দেশের প্রথম করোনা টিকা নিলেন নার্স রুনু

দেশের প্রথম করো’না (কোভিড-১৯) টিকা নিলেন কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তা। বুধবার (২৭ জানুয়ারি) 'বিকেল সাড়ে ৩টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টিকা কার্যক্রম উদ্বোধনের পরই তিনি প্রথম টিকা নেন।

সংশ্লি'ষ্টরা জানান, প্রথম টিকা নেন হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু ভেরোনিকা কস্তা। এরপর পর্যায়ক্রমে চিকিৎসক হিসেবে প্রথম টিকা নেন মেডিসিন কনসালটেন্ট ডা. আহমেদ লুৎফর মবিন, তারপর স্বাস্থ্য অধিদ'প্ত রের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা, ট্রাফিক পু'লিশের সদস্য দিদারুল ইসলাম এবং সেনাবাহিনীর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইমর'ান হামিদ।

দেশে নভেল করো’নাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ শনাক্তের ৩২৭ দিন পরে প্রথম ভ্যাকসিন প্রয়োগ কার্যক্রম শুরু হলো। এরপর আগামীকাল বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালসহ রাজধানীর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, কুয়েত-মৈত্রী জেনারেল হাসপাতাল ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু করা হবে।

এর আগে, ভ্যাকসিন প্রয়োগের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, করো’না সংক্রমণ মোকাবিলা করতে শুরু থেকেই আমর'া স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে বলে রেখেছিলাম, কোথাও ভ্যাকসিন তৈরি হলে যেন আমর'া আগে বুকিং দিয়ে রাখতে পারি। যে ভ্যাকসিন আগে বাজারে আসবে, সেটিই আমর'া নেব— সেভাবেই আমর'া উদ্যোগ নিয়েছি।

তিনি বলেন, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা করো’না ভ্যাকসিন উদ্ভাবন করল। ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট সেই ভ্যাকসিন উৎপাদনের জন্য চুক্তিব'দ্ধ হলো। এর মধ্যে সিরামের সঙ্গে যোগাযোগ করল বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস। আমি বলেছিলাম, যতগু'লো ডোজ ভ্যাকসিন কেনা যায়, আমর'া নিয়ে নেব। সেভাবেই সিরাম ও বেক্সিমকোকে সঙ্গে নিয়ে সরকার ত্রিপাক্ষিক চুক্তি করেছে। সেই সূত্রেই এখন ভ্যাকসিন দেশে এসেছে।

Facebook Comments
Back to top button