করোনার সময়ে রাত জেগে ডিউটি করে সকালে ঘুমাতেন সাকিব

রাত দশটা থেকে সকাল ছয়টা সাতটা পর্যন্ত মেয়ের দেখাশুনা করতো সাকিব। এ জন্যই সাকিব তামিমের আড্ডায় যোগ দিতে পারেন নি করো’নার সময়ে। সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন সাকিব। করো’নার সময়ে কোন পরিচারিকা ছিলো না। তাই সাকিব নিজেই মেয়ের দেখাশুনা করতেন।

সারারাত জেগে ডিউটি করে সকালে ঘু'মাতেন। শ্বাশুড়ি ও স্ত্রী বাকি সময় বাচ্চার দেখভাল করত। ঠিক ওই সময়ই তামিমের আড্ডা 'হত। কারণ সাকিব ওই সময় যুক্তরা'ষ্ট্রে ছিলেন।

সাকিব শিশির দম্পত্তি দ্বিতীয় কন্যা সন্তানের বাবা মা হন গতবছরের এপ্রিলে। সাকিব আল হাসান তৃতীয় সন্তানের বাবা হওয়ার জন্য অ’পেক্ষায় আছেন। কিছুদিন আগেই একথা সাকিব নিজেই ভেরিফাইড ফেইসবুক পেইজে ঘোষণা দেন।

Facebook Comments
Back to top button