উপরে আল্লাহ নিচে শেখ হাসিনা ছাড়া কাউকে ভয় করি না : কাদের মির্জা

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, আগামী এক স'প্ত াহের মধ্যে তার দাবি পূরণ না হলে এমন এক পরিস্থিতির সৃ'ষ্টি হবে, যেই পরিস্থিতির কারণে ওবায়দুল কাদেরকে হয়তো আর কোম্পানীগঞ্জের মাটি স্পর্শ করতে দেয়া হবে না।

তিনি বলেন, সাত দিনের মধ্যে প্রশাসন সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ থাকতে হবে, অবৈ'ধ অ'স্ত্র উ'দ্ধার করতে হবে, মিথ্যা মাম'লা থেকে তার কর্মীদের অব্যা'হতি ও মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় অনুসারীদের রে'ডি (প্রস্তুত) থাকতেও নির্দেশ দিয়েছেন কাদের মির্জা।

বৃহস্পতিবার (১০ জুন) সকালে কাদের মির্জা নিজের ফেসবুক লাইভে এসব কথা বলেন। এর আগে চিকিৎসার জন্য যুক্তরা'ষ্ট্রে না গিয়ে বুধবার (৯ জুন) গভীর রাতে এলাকায় ফিরে আসেন তিনি।

যুক্তরা'ষ্ট্রে না যাওয়ার কারণ হিসেবে কাদের মির্জা বলেন, ‘দেশের শত্রুরা বিদেশেও ষ'ড়যন্ত্র করছে। আমেরিকায় আমাকে গু'ম ও হ'ত্যা করার জন্য কালাইয়াদের এক কোটি টাকা কন্ট্রাক্ট করেছে। তারা সেখানে আমাকে মে'রে দেশে প্রচার করবে আমি পালিয়ে গেছি। এজন্য তারা দেশে একরামের (এমপি) বাড়িতে ও আমেরিকায় ম্যাকডোনাল্ডে আল-আমিনের বাসায় বৈঠকও করেছে।’

কাদের মির্জা বলেন, ‘আমি বিদেশ যাওয়ার সি'দ্ধান্ত নেয়ায় অ’পশক্তিরা (প্রতিপক্ষ) বৈঠক করে আমার নেতাকর্মীদের হ'ত্যা করে পৌরসভা দখল ও কাউন্সিলরদের দিয়ে আমার বিরু'দ্ধে অনাস্থা দেয়ার সি'দ্ধান্ত নিয়েছে। তাই আমিও সি'দ্ধান্ত নিয়েছি, আমার দুঃসময়ের কর্মীদের অ'স্ত্রের মুখে ঠেলে দিয়ে চিকিৎসার জন্য আমি আমেরিকা যেতে পারি না। মা'রা গেলে দেশেই মর'ব।’

বড় ভাই ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে কাদের মির্জা বলেন, “ওবায়দুল কাদের সাহেব, আপনার ‘গু'ণধর’ ভাগিনাদের সাম'লান। তা না হলে আপনিও মায়া ভাইদের মতো হারিয়ে যাবেন। আপনি এমন কোনো ব্যক্তি হননি যে শেখ হাসিনা আপনাকে ছাড়া দল চালাতে পারবে না। আপনি বিএনপিকে বলেন মিডিয়াসর্বস্ব দল, আপনি মিডিয়ার বাইরে দলের জন্য কী কাজ করেন?”

তিনি বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সাহেব, গত পাঁচ মাস অতিবাহিত হয়ে গেল। এখানে (কোম্পানীগঞ্জ) অ'স্থিতিশীল পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আপনি এ এলাকার এমপি, এখানকার ভোটে আপনি মন্ত্রী হয়েছেন। আপনার স্ত্রী এখন আপনার রাজনীতির নিয়ামক শক্তি হিসেবে আবির্ভূ'ত হয়েছে। যে মহিলা বাংলাদেশের ১০ জন দুর্নীতিবাজের তালিকায় একজন হবেন।’

ওবায়দুল কাদেরকে উদ্দেশ করে কাদের মির্জা আরও বলেন, ‘আমনে জিয়ান অইবার (প্রেসিডেন্ট) চিন্তা করেন, হিয়ানও কঠিন অই গেছে (আপনি যেটা হওয়ার চিন্তা করছেন, সেটাও কঠিন হয়ে গেছে)। র'ক্তচক্ষু দেখাবেন না, আমি যেখানে থাকার সেখানেই আছি। উপরে আল্লাহ নিচে শেখ হাসিনা ছাড়া আমি আর কাউকে ভয় করি না।’

তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, “আমারে পু'লিশ অ’পমান করে আর আমার ভাই নাকি মন্ত্রী! তিনি কিসের মন্ত্রী, কোন দেশের মন্ত্রী? তিনি আমাকে বলেন, ‘দেখছি-শান্ত থাক’।”

বসুরহাট পৌরসভার মেয়র কাদের মির্জা বলেন, ‘তারেক রহমান বিশ্বের বাংলা ভাষাভাষীদের মধ্যে সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি। সে কোথাও থেকে টাকা চায় না। সবাই দিয়ে আসে। আর আমা'দের দলেরগু'লো বাঁ'চার জন্য বেশি দিয়ে আসে। এর মধ্যে ওবায়দুল কাদেরের মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতিবাজরাও রয়েছে।’

Facebook Comments
Back to top button